পুরুষের লজ্জা মেয়েদের থেকে বেশী গবেষনায় এটাই অকাট্য প্রমাণিত. মায়মুনা নভেরা

মহিলাদের চেয়ে পুরুষের লজ্জা বেশী_অপু

একদিন এক স্কুলে স্থানীয় মহিলারা একটি সাধারণ সভার আয়োজন করছিলেন।

সেখানে বক্তব্য দিতে গিয়ে এক মহিলা বলেছিল যে,
“মহিলাদের চেয়ে পুরুষের লজ্জা বেশী।”

কথাটা শেষ করতে না করতেই; এক ভদ্র মহিলা (নারীবাদী) উঠে দাঁড়ালেন। প্রতিবাদের সুরে বললেন, ‘আপা, আপনার কথাটা মানতে পারলাম না।
পুরুষ মানুষের আবার লজ্জা দেখলেন কোথায়? ওরা তো বেশরম- বেলাজ। লজ্জাহীন!

তখন প্রথম মহিলা, দ্বিতীয় মহিলার বক্তৃতা থামিয়ে বললেন আপা, আপনি কি করেন? তিনি উত্তরে বললেন আমি স্কুলে শিক্ষকতা করি। প্রথম মহিলা বলল, আচ্ছা স্কুলে ক’জন পুরুষ আর ক’জন মহিলা শিক্ষক/শিক্ষিকা আছেন?

তিনি গর্বের সাথে বললেন, আমরা সমান সমান।
চার জন পুরুষ চার জন মহিলা। ভদ্র মহিলাটি খুব হাসি মুখেই উত্তর দিলেন

প্রথম মহিলা বলল, আপা আপনি কি কোনো দিন আপনার পুরুষ সহকর্মীদের পেট-পিঠ দেখেছেন?
“ভদ্রমহিলা ভ্রু কুচকে তাকালেন। তিনি বললেন তার মানে?

প্রথম মহিলা বলল “দেহ প্রদর্শন করা নির্লজ্জতা।
কিন্তু এই কাজটা সাধারণত পুরুষেরা করে না। আপনার মত মহিলারাই বেশি করতেছে। এই যে আপনার অবস্থা!

আপনার যদি কখনো ইচ্ছে হয়, আপনার কোনো পুরুষ সহকর্মীর পেঠ কিংবা পিঠ দেখবেন, তাহলে তাকে ডেকে বলতে হবে ভাই আপনার শার্ট কিংবা পাঞ্জাবী টা একটু উপরে তুলুন তো, আমি আপনার পেঠ কিংবা পিঠ তা একটু দেখব। সেই ভাই তখন নির্ঘাত আপনাকে পাগল মনে করবে!

আর আপনার পেট-পিঠ কতভাবে কত এ্যাংগেলে কত পরিমাণ এমনকি কোথায় কি আছে সব দেখাচ্ছেন সেটা খেয়াল করছেন? যা শতশত পুরুষ- মহিলা দেখছে তার কি কোন হিসাব আছে?

পুরুষেরা পেট পিঠ বের করা পোষাক পড়ে বাইরে কিংবা অফিস-আদালতে যাবে না, এটা তাদের স্বাভাবিক লজ্জা। যা থাকা উচিত ছিল মেয়েদের!!

অথচ মেয়েরা কিভাবে গলাটা আর একটু বড় করে কাঁধ এবং বুকের উপরি অংশ বের করা যাবে, কিভাবে জামার হাতার উপরি অংশ কেটে মাসেল দেখানো যাবে- সেই চেষ্টা করে। আরো কিভাবে পশ্চিমা কালচার ধরবে সেটার প্রতিযোগিতা করছে। তার মানে কি? বেহায়া নয়কি?-লজ্জাহীনতা মেয়েদের অস্থিমজ্জায় এমনভাবে ঢুকে গেছে যে, এ বিষয়টাকে তারা লজ্জার বিষয় বলে মনেই করে না। (আফসোস)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *